ট্রানজিস্টর ও জেনার দিয়ে ভোল্টেজ রেগুলেটর

5
2082
ট্রানজিস্টর দিয়ে ভোল্টেজ রেগুলেটর

ইলেকট্রনিক্সের কাজ করতে গেলে প্রায় সময়ই ভোল্টেজ কে স্থির রাখার প্রয়োজন হয়। আর তার জন্যই প্রয়োজন হয়ে পড়ে ভোল্টেজ রেগুলেটর এর। পাওয়ার সাপ্লাই হিসেবেও একে সচ্ছন্দে ব্যবহার করা যায়।

ভোল্টেজ রেগুলেটর কি?

ভোল্টেজ রেগুলেটর এমন একটি সার্কিট (বা আইসি) যার মাধ্যমে আউটপুট ভোল্টেজ কে সবসময় স্থির রাখা যায়। অর্থাৎ ভোল্টেজ রেগুলেটর এর ইনপুটে ভোল্টেজের কমা-বাড়ায় ও আউটপুট ভোল্ট স্থির থাকে।

আমরা সচারচর ভোল্টেজ রেগুলেটর হিসেবে 7805, 7812, 7809, 7818 ইত্যাদি ব্যবহার করি। কিন্তু একটু চেষ্টা করলে ট্রানজিস্টর দিয়েও ভোল্টেজ রেগুলেটর তৈরি করা সম্ভব।

ভোল্টেজ রেগুলেটর এর ডায়াগ্রামঃ

নিচে এমনি একটি ট্রানজিস্টর দিয়ে তৈরি ভোল্টেজ রেগুলেটর সার্কিট ডায়াগ্রামের চিত্র দেয়া হলো।

ট্রানজিস্টর ও জেনার দিয়ে ভোল্টেজ রেগুলেটর

আরো একটি ডায়াগ্রাম –

ট্রানজিস্টর দিয়ে ভোল্টেজ রেগুলেটর ২

উভয় ডায়াগ্রামের আউটপুটে প্রয়োজনীয় লোড সংযুক্ত করতে হবে। এতে করে উক্তলোড টির ভোল্ট সর্বদা স্থির থাকবে।  ডায়াগ্রামে দেয়া জেনার ডায়োডের মান পরিবর্তন করে আউটপুট ভোল্ট কে স্থির রাখা যাবে।

ট্রানজিস্টর হিসেবে BD139, BD135, 2N3055 কিংবা BD679 এরমত ডার্লিংটন ট্রানজিস্টর ব্যবহার করা যেতে পারে। কালেক্টর থেকে বেস এ সংযুক্ত রেজিস্টর টির মান ২২০ ওহমস থেকে ১ কিলো ওহম হতে পারে।

উচ্চ এম্পিয়ারের ট্রানজিস্টর ব্যবহার করলে উচ্চ এম্পিয়ার আউটপুট পাওয়া সম্ভব। সাধারণ রেগুলেটর আইসি তে তা মাত্র ১-১.৫ এম্পিয়ার। অবশ্যই ট্রানজিস্টরটিতে ভালো ও বড় আকারের হিটসিংক লাগাতে হবে।

(ছবিঃ নেট থেকে)

5 মন্তব্য

    • সাধারণ রেগুলেটর আইসি দিয়ে বানালে এর ইনপুট ভোল্টেজ আউটপুট ভোল্টেজের চেয়ে ২ থেকে ৩ ভোল্ট বেশী রাখতে হয়। সেদিক দিয়ে ট্রানজিস্টর নির্মিত রেগুলেটরের ক্ষেত্রে মাত্র ১ ভোল্ট বেশী রাখলেই আউটপুটে প্রয়োজনীয় রেগুলেটেড ভোল্টেজ পাওয়া যায়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here